স্টাফ রিপোর্টার: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মহাসচিব প্রিন্সিপাল মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেছেন, চীন মুসলমানদের ধর্ম পালনে নতুন বাধা সৃষ্টি করছে।

ইসলামকে সমাজতান্ত্রিক নীতির সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ উপায়ে পরিচালিত এবং ইসলামী শিক্ষা-সংস্কৃতি পরিবর্তন করার ষড়যন্ত্র করছে। তিনি ইসলাম নিয়ে চীনের এই গভীর ষড়যন্ত্রের বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন। বিবৃতিতে মহাসচিব বলেন, চীনের বিভিন্ন মসজিদ থেকে গম্বুজ ও চাঁদ-তারার প্রতিকৃতি সরিয়ে নেয়া ইসলামী সংস্কৃতিতে চরম আঘাত। চীন ইসলামকে সমাজতান্ত্রিক নীতির সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ করে বাস্তবায়নের কথা বলে ইসলামের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে।

তিনি আরো বলেন, চীনের কিছু কিছু এলাকায় নামাজ-রোযার পাশাপাশি দাঁড়ি রাখায় বা হিজাব পরায় অনেককে গ্রেফতারের হুমকি দিচ্ছে। এমনকি দেশটিতে লাখ লাখ মুসলমানকে বিভিন্ন ক্যাম্পে আটক রেখে ধর্মপালনে বাধা এবং জোর করে কমিউনিস্ট মতাদর্শে আস্থাশীল করার অপচেষ্টা করছে। তিনি ইসলাম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের পথ পরিহার করার জন্যে চীন সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান। তিনি বলেন, চীন যত শক্তিশালীই হোক ইসলামের ওপর আঘাত করে রেহাই পাবে না।

ফেরাউন চীনের চেয়ে শক্তিশালী হয়েও আল্লাহ তায়ালার আক্রোশে টিকে থাকতে পারেনি। তাই চীনকে এথেকে শিক্ষা নিতে হবে। এ বিষয়ে সোচ্চার হয়ে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে তিনি মুসলিম বিশ্বের প্রতি আহ্বান জানান।

Facebook Comments