মুক্তাদির চৌধুরী, সিলেট প্রতিনিধি : ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মোহাম্মদ ফয়জুল করীম (শায়েখে চরমোনাই) বলেছেন, মানব রচিত তন্ত্রমন্ত্র দিয়ে ইহকালীন কল্যাণ ও পরকালীন মুক্তি সম্ভব নয়। ইসলাম থেকে দূরে সরে যাওয়ার কারণে খোদায়ী আযাবে আমরা নিপতিত হচ্ছি। যতদিন মুসলমানরা ইসলাম আঁকড়ে ধরেছিল, ততদিন তামাম দুনিয়াজুড়ে মুসলমানদের সোনালী দিন ছিল। কুরআন ও সুন্নাহ ছেড়ে দিয়ে যখন মানুষ প্রচলিত তন্ত্রমন্ত্রের দিকে ধাবিত হচ্ছে, তখন আল্লাহর আযাব আর গজবে আমরা পতিত হচ্ছি।

মানুষ নৈতিকতা হারিয়ে অনৈতিক কর্মকান্ডের দিকে ধাবিত হচ্ছে। নৈতিকতা বিবর্জিত জাতিকে ফিরিয়ে আনতে হলে রাসূল সা.-এর আদর্শ কায়েম করতে হবে। মানুষের জৈবিক যত চাহিদা রয়েছে সবকিছুর দিকনির্দেশনা রয়েছে ইসলামে। কোন মানুষ যদি পরিপূর্ণ ইসলামী জীবনাচার মেনে চলে, সে পরিণত হয় একজন আদর্শ মানুষে। তেমনি সমাজ ও রাষ্ট্র যদি ইসলাম অনুযায়ী পরিচালিত হয়, সেই রাষ্ট্রও হবে বিশ্বের মধ্যে মডেল। তিনি সকলকে দেশ ও জাতির স্বার্থে ইসলামের সুমহান আদর্শের ছায়াতলে সমবেত হবার জন্য আহবান জানান। বাংলাদেশ ৯২ ভাগ মুসলমানের দেশ। এদেশে সকল সংস্কৃতি ও মূল্যবোধ হবে ইসলামী আদলে। ন্যায় নীতির আদর্শ হচ্ছে পবিত্র কুরআন। তিনি সরকারের প্রতি দেশ, জনগণ ও জনগণের ধর্মীয় অধিকার রক্ষায় ইসলামের নীতিতে কাজ করার আহবান জানান।

মুফতী ফয়জুল করীম গতকাল মঙ্গলবার (১৭ অক্টোবর) বাদ এশা বাংলাদেশ মুজাহিদ কমিটি দক্ষিণ সুরমা থানা শাখার আয়োজিত সিলেট নগরীর কদমতলী পয়েন্টে বিশাল ওয়াজ মাহফিল ও হালকায়ে যিকিরে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

সুলতানপুর মহিলা মাদরাসার মুহতামীম মাওলানা আনোয়ারুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বয়ান পেশ করেন সুনামগঞ্জ জাউয়া মাদরাসার শায়খুল হাদীস মাওলানা ফয়জুর রহমান, বাংলাদেশ কুরআন শিক্ষা বোর্ডের প্রশিক্ষক মাওলানা আব্দুর রাজ্জাক, মাওলানা আব্দুল মালেক বি-বাড়িয়া, মাওলানা রেদুওয়ানুল হক রাজু, মাওলানা সাঈদ আহমদ, মাওলানা আব্দুল্লাহ আল মামুন প্রমুখ।

Facebook Comments