| |

নির্বাচনের পর মানুষের মৌলিক ও ধর্মীয় অধিকার হুমকির মুখে: ইসলামী আন্দোলন

প্রকাশিতঃ ৬:০৬ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ০৯, ২০১৯

আইএবি নিউজ ডেস্ক: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মহাসচিব প্রিন্সিপাল মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেছেন, নির্বাচন পরবর্তীতে সারাদেশে মানুষের মৌলিক অধিকার, ধর্মীয় অধিকার খর্ব করছে দলীয় ক্যাডাররা। নৌকায় ভোট না দেয়ায় দেশের বিভিন্ন স্থানে নানাভাবে হয়রানির শিকার হচ্ছেন নেতাকর্মীরা ও বিভিন্ন পেশা শ্রেণির মানুষ। এরূপ হয়রানী ও হুমকি থেকে বাদ যাচ্ছেন না মসজিদের ইমামও। নির্বাচনের পর পর ঢাকার বিভিন্ন মসজিদের ইমাম নৌকায় ভোট না দেয়ায় তাদেরকে মসজিদে না আসার হুমকি দেয়া হয়েছে। এতে একজন মানুষের ভোটাধিকার ও ধর্মীয় অধিকারের ওপর চরম হস্তক্ষেপ। মানুষের মৌলিক ও ধর্মীয় অধিকার প্রতিষ্ঠিত না হলে সমাজের ভারসাম্যতা হারিয়ে অশান্তি চরম আকার ধারণ করবে। সম্প্রতি বিভিন্ন ঘটনা তারই প্রমাণ।

আজ বিকেলে পুরানা পল্টনস্থ আইএবি মিলনায়তনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা-৮ আসনের নির্বাচন পরবর্তী পর্যালোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ঢাকা-৮ আসনের প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত পর্যালোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সংগঠনের ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলম ও কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট লুৎফুর রহমান শেখ, মাওলানা এইচএম সাইফুল ইসলাম, মাওলানা নজরুল ইসলাম, মাওলানা বাছির উদ্দিন মাহমুদ, আইয়ূব আলী চৌধুরী প্রমুখ।

মহাসচিব মাওলানা ইউনুছ আহমাদ আরো বলেন, ইসলামী আন্দোলন নির্বাচনকে জিহাদের অংশ হিসেবে গ্রহণ করে ইসলাম বিজয়ের লক্ষ্যে কাজ করছে। সন্ত্রাস, দুর্নীতি ও মাদকমুক্ত কল্যাণরাষ্ট্র প্রতিষ্ঠাই এর মূল লক্ষ্য। কাজেই ইসলামী অনুশাসন প্রতিষ্ঠায় ঐক্যবদ্ধ হলে ইসলামবিরোধী শক্তিগুলো টিকে থাকতে পারবে না।

5534Shares