সংসদ নির্বাচনের ফলাফল বাতিলে ইসিকে চিঠি দিয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই।

চিঠিতে বলা হয়েছে দলের প্রার্থীরা ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে হাতপাখা প্রতীক নিয়ে ২৯৮ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। দেশের সকল আসনেই প্রশাসনের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সহযোগিতায় পূর্ব দিন রাতেই মহাজোটের ক্যাডাররা ৩০-৭০% ব্যালট পেপারে নৌকার সীল মেরে ব্যালট বাক্স ভর্তি করে ফেলে। হাতপাখার প্রার্থী ও কর্মীদের উপর হামলা চালায়। সেন্টার দখল করে। ভোট কেন্দ্রে এজেন্টদেরকে প্রবেশ করতে দেয়নি। অনেক কেন্দ্রে পোলিং এজেন্টদেরকে অপমান করে বের করে দেয়া হয়েছে। ব্যালট পেপার কেড়ে নিয়ে মহাজোটের মার্কায় ভোট দিতে বাধ্য করা হয়। ভোটারদেরকে ভোট দানে বাধা প্রদান করে নৌকা ছাড়া অন্য কোন প্রতীকে ভোট দিতে দেয়নি। হাতপাখার এজেন্ট, ভোটার ও কর্মীদের মোবাইল নম্বর রেখে দিয়ে পরবর্তীতে দেখে নেওয়ার হুমকি প্রদান করা হয়েছে। পোলিং এজেন্টদেরকে অপহরণ ও পুলিশ কর্তৃক অযথা গ্রেফতারসহ নানা অনিয়মের কারণে নির্বাচন অগ্রহণযোগ্য।

এ নির্বাচন কোনো ভাবেই মেনে নেয়া যায় না। নির্বাচনের নামে প্রহসন ও জনগনের অর্থ অপচয়ের মাধ্যমে প্রতারণা করা হয়েছে। ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনের ফলাফল ইসলামী আন্দোলন প্রত্যাখ্যান করেছে। পীর সাহেব চরমোনাই এ নির্বাচনের ফলাফল বাতিল করে অতিদ্রুত সময়ে নতুন তফসিলে জাতীয় সংসদ নির্বাচন দেয়ার দাবী করেন।

Facebook Comments