| |

রমজানের পবিত্র রক্ষার দাবিতে চাটখিলে ইসলামী আন্দোলনের মিছিল অনুষ্ঠিত

প্রকাশিতঃ ১২:০৩ অপরাহ্ণ | মে ১৭, ২০১৮

আবদুল ওহাব, নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ গতকাল ১৬ মে’১৮ রোজ বুধবার বাদ আসর চাটখিল কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ চত্ত্বরে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চাটখিল উপজেলা শাখার অায়োজনে রমজানের পবিত্রতা রক্ষার দাবিতে মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, রমজান মাসকে সামনে রেখে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের মূল্যবৃদ্ধি জনজীবনকে চরম দুর্বিষহ করে তুলেছে। এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী রমজানকে সামনে রেখে একদিকে ইবাদত বন্দেগী করে অপরদিকে জিনিসপত্রের দাম বাড়িয়ে অতিরিক্ত মুনাফা আদায় করে। এমন ইবাদত আল্লাহর কাছে গ্রহণযোগ্য নয়। তাই মূল্য বৃদ্ধি ও খাদ্যে ভেজাল বন্ধ করা জনগণের প্রাণের দাবি। মাহে রমজানের সম্মানে সব ধরণের গর্হিত কাজ থেকে বিরত থাকতে ও রাখতে সরকারকে কার্যকরি উদ্যোগ নিতেই হবে।

রমজানের পবিত্রতা রক্ষার দাবিতে আয়োজিত সমাবেশে বক্তারা অারো বলেন, ৯২ ভাগ মুসলমানের দেশে রমজানের পবিত্রতা ব্যাহত হলে ঈমানদার জনতা ঈমান রক্ষায় রমজান মাসেও আন্দোলনে নামতে বাধ্য হবে। তাঁরা বলেন, সকল দিক থেকে রমজানের মাহাত্ন্য ও গুরুত্ব অপরিসীম হলেও রমজানের মর্যাদা আমাদের দেশে চরমভাবে ভুলুন্ঠিত। রমজানের পবিত্রতা রক্ষায় রাষ্ট্রীয়ভাবেওদদ কোন উদ্যোগ নেই।

যার ফলে রমজান মাসেও একদল মুনাফাখোর ও ব্যবসায়ী রমজানকে লুণ্ঠনের মোক্ষম সময় মনে করে মূল্যবৃদ্ধিসহ খাদ্যে ভেজাল দেয়া শুরু করে। নিত্যপ্রয়োজনী দ্রব্যাদির কৃত্রিম সঙ্কট সৃষ্টি করে লাগামহীন মূল্য বৃদ্ধি করে রমজানের গুরুত্বকে ম্লান করে দেয়া হয়। আবার রমজান মাসেও একশ্রেণির লম্পট লোক মাহে রমজানেও অশ্লীলতা-বেহায়াপনা, বেপর্দা-নগ্নতার ছড়াছড়ি করে রোজাদারদের পবিত্রতা বিনষ্ট করার পরিবেশ তৈরি করে।

এসকল অন্যায় ও খোদাদ্রোহীতাকে রাষ্ট্রীয়ভাবে নির্মূল করতে কার্যকরি ব্যবস্থা নেয়ার দায়িত্ব সরকারের। রমজানের দাবি পুরণে পবিত্রতা রক্ষা, অশ্লীলতা পরিহার, মূল্যবৃদ্ধি না করা, ভেজাল না দেয়া সরকারসহ প্রত্যেক মুসলমানের ঈমানী দায়িত্ব।

ইসলামী অান্দোলন বাংলাদেশ চাটখিল উপজেলা শাখা সেক্রেটারি মাওলানা শামছুল ইসলামের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত মিছিল পূর্ব সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আন্দোলনের উপজেলা সহ-সভাপতি মাওলানা ইলিয়াস, উপজেলা নেতৃবৃন্দ, ইশা ছাত্র অান্দোলন চাটখিল উপজেলা শাখা সভাপতি মুহাম্মাদ হাছান অাহমাদ, সাধারণ সম্পাদক দিদারুল ইসলাম প্রমুখ।

182Shares