| |

শায়েখ চরমোনাইর ডাকে লাখো মুসলমান একত্রিত হওয়া মকবুলিয়াতের নিদর্শন: আল্লামা কমরুদ্দীন আহমদ

প্রকাশিতঃ ৭:১৩ অপরাহ্ণ | মার্চ ২১, ২০১৮

তাওহীদ আদনান : আল্লামা কমরুদ্দীন আহমদ এ বৎসরের চরমোনাই মাহফিলে বলেন, আল্লাহ তায়ালা হজরত মুহাম্মদ সা. এর মাঝে অনেক সৌন্দর্য এবং বৈশিষ্ট্য দান করেছিলেন। হজরত আয়েশা রা. বলতেন, হজরত ইউসুফ আ. এর সৌন্দর্য দেখে মিশরের নারীরা ফল কাটার পরিবর্তে তাদের হাত কেটে ফেলেছিলো।

যদি তারা মুহাম্মদ স. এর সৌন্দর্য দেখতো তাহলে নিজেদের কলিজা কেটে ফেলতো! রাসুল সা. কে হাওজে কাউসার দিয়েও সম্মনিত করা হয়েছে। যেখানে তারকা সমপরিমাণ পেয়ালা থাকবে। রাসুল সেখানে উম্মতকে পানি পান করাবেন। কিন্তু উম্মতকে এ নেয়ামত লাভ করতে হলে আমল করতে হবে। প্রথমত নিয়মিত নামাজ আদায় করতে হবে। রাসুল সা. হাদীসে ইরশাদ করেছেন, আমার তিন জিনিস প্রিয়, নামাজ, সুগন্ধি ও নারী। আপনারা এ ময়দান থেকে এ শপথ নিন যে, নিজেরাও নামাজ আদায়ে যত্নবান হবেন এবং নিজ পরিবারকেও উৎসাহিত করবেন।

আপানারা উলামা, মাদরাসা মসজিদের সাথে সুসম্পর্ক রাখুন। বড়ই আনন্দের বিষয় যে, হজরত পীর সাহেবের ডাকে এ ময়দানে লাখ লাখ মুসলমান একত্রিত হয়েছেন। নিঃসন্দেহে এটা আমাদের পূর্ববর্তী বুজুর্গদের মকবুলিয়াতের নিদর্শনও বটে। চরমোনাইর এ সিলসিলা হজরত গাঙ্গুহী রহ. এর সিলসিলা। আর তিনি ছিলেন আকাবির উলামাদের মুরুব্বী। সুতরাং এটাও মাকবুলিয়াতের একটি নিদর্শন৷ আমি আমার বড়দের থেকে শুনেছি, হজরত গাঙ্গুহী রহ. এর খানকার জিকিরের প্রভাব এই ছিলো যে, এক ধোপা যখন কাপড় পরিস্কার করতো তখনও সে জিকির করতো। এ সিলসিলা একটি বরকতময় সিলসিলা। আল্লাহ তায়ালা আপানাদের এ হক তরিকার সাথে, পীর সাহেবের সাথে সম্পৃক্ত করেছেন।

আল্লাহ সবাইকে হকের উপর অটল বিচলতা এবং এখলাস দান করুন। সমস্ত অনিষ্টতা ও বিপদ থেকে হেফাজত করুন।

শায়খে সানী

দারুল উলূম দেওবন্দ, ভারত

3497Shares