| |

স্বৈরাচার শাসকের সামনে হক কথা বলা সর্বোত্তম জিহাদ : মুফতী ফয়জুল করীম

প্রকাশিতঃ ৮:৪৭ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ২৩, ২০১৮

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মুহা. ফয়জুল করীম (শায়েখে চরমোনাই) বলেছেন, রাসূল (সঃ) এর পরিস্কার ঘোষণা, অন্যায় দেখলে কঠোরভাবে প্রতিরোধ করবে, অন্যায় দেখে কেউ যদি বাধা প্রদান না করে তাহলে মৃত্যুর পূর্বে আল্লাহ অবশ্যই শাস্তি দিবেন এবং অন্যায় কাজে বাধা না দিলে সে রাসূলের উম্মত নয়। কেয়ামতের আলামত হিসেবে অযোগ্য লোকদের হাতে ক্ষমতা অর্পন করা হবে। এ সময় স্বৈরাচার শাসনের সামনে হক কথা বলাকে সর্বোত্তম জেহাদ বলেছেন। কিন্তু বর্তমানে সত্য কথা বললে হক কথা বললে তার উপর জেল জুলুম নির্যাতন খুন গুম নেমে আসে কিন্তু মুসলমান তার জীবন দিবে তবুও হককে সর্বোবস্থায় হক বলতে হবে। এটিই ইসলামের শিক্ষা। বর্তমানে কিছু আলেম সমাজকে দেখা যায় অন্যকে সৎ কাজের আদেশ দেন কিন্তু নিজে তা পালন করেন না। এতে তারাও ক্ষতিগ্রস্থ।

তিনি আরও বলেন, বিশ্বের ইতিহাস খোঁজ করলে দেখা যায় হিন্দু ধর্মের প্রধান রাম, বৌদ্ধ ধর্মের প্রধান বুদ্ধদের কখনই রাষ্ট্রপ্রধান ছিলেন না এবং দেশ শাসনও করেন নি। কিন্তু মুসলমানদের ইতিহাস সোনালী যুগের ইতিহাস, ন্যায় ইনসাফের ইতিহাস। ইসলাম ধর্মের প্রবর্তক হযরত মোহাম্মদ (সঃ) মসজিদে নববীতে ইমামতি করছেন, (রাষ্ট্রপ্রধান) দেশ শাসনও করছেন। ২য় খলিফা হযরত উমর (রাঃ) বাংলাদেশের মতো ২০০টি রাষ্ট্রের সমান অর্ধপৃথিবী শাসন করছেন। কিন্তু বর্তমানে মুসলমানরা আল্লাহর কুরআন ও রাসুল (সঃ) এর সুন্নতের উপর আমল ছেড়ে দেয়ার কারনে এবং অন্যায়ের প্রতিবাদ না করার কারনে বিধর্মীরা আজ মুসলমানদের শাসনকর্তা বনে গেছে।

বাংলাদেশ মুজাহিদ কমিটি হবিগঞ্জ জেলার লাখাই থানার উদ্যোগে গতকাল সোমবার (২২ অক্টোবর) রাত ১১টায় বামৈ হাইস্কুল মাঠে বিশাল এক ওয়াজ মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ওলামা মাশায়েখ আইম্মা পরিষদের থানা সভাপতি মাওলানা মোস্তাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বয়ান পেশ করেন হযরত মাওলানা আব্দুল মালেক ফয়েজী-বিবাড়িয়া, হাফিজ মাওলানা মাইনুদ্দিন খান তানভীর, ক্বারী সাদেকুর রহমান, মাওলানা ইকবাল হোসেন, মাওলানা সাকির মাহমুদ প্রমুখ।

2264Shares