| |

সোমবার মার্কিন দূতাবাস অভিমূখে গণমিছিল সফল করার আহবান ইসলামী আন্দোলনের

প্রকাশিতঃ ৮:২২ অপরাহ্ণ | ডিসেম্বর ১০, ২০১৭

আইএবি নিউজ: মুসলমানদের প্রথম কিবলা বাইতুল মুকাদ্দাসের আঙ্গিনায় অবৈধ জারয রাষ্ট্র ইসরাঈলের রাজধানীর স্বীকৃতি মুসলিম উম্মাহ কোনভাবে মেনে নেবে না। সাম্রাজ্যবাদের নব্য ফেরাউন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের এই সিদ্ধান্ত মধ্যপ্রাচ্যের উত্তপ্ত আগুনে পেট্রোল ঢেলে দেয়ার শামিল। জাতিসংঘ , ও আই সি, আরবলীগসহ শান্তিকামী বিশ্ব নেতৃবৃন্দ যখন মধ্যপ্রাচ্যের পারস্পারিক সংঘাত মিটিয়ে শান্তি প্রতিষ্ঠার চেষ্টায় রত, তখনই বিশ্ব সভ্যতার জন্য হুমকি, শান্তি প্রতিষ্ঠার প্রতিবন্ধক ডোনাল্ড ট্রাম্পের এই সিন্ধান্ত বিশ্বকে আবার অশান্তির দিকে ঠেলে দিয়েছে।

শনিবার (৯ ডিসেম্বর’১৭ইং) বিকাল ৪টায় পল্টনস্থ নগর কার্যালয়ে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর উত্তরের যৌথসভায় নগর উত্তর সভাপতি অধ্যক্ষ হাফেজ মাওঃ শেখ ফজলে বারী মাসউদ উপর্যুক্ত কথা বলেন। বিগত প্রহসনের সিটি নির্বাচনে ঢাকা উত্তরের মেয়র প্রার্থী হিসেবে তৃতীয় স্থান অধিকারী অধ্যক্ষ শেখ ফজলে বারী মাসউদ বলেন, মেয়র আনিসুল হকের মৃত্যুতে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে শূন্য পদ পূরণের সরকারের সদিচ্ছা থাকলে নির্বাচনের সিডিউল ঘোষণা করুন। আর যদি বিগত নির্বাচনের ন্যায় তামাশা করতে মনে চায় তবে অযথা রাষ্ট্রীয় অর্থ অপচয় করা থেকে বিরত থাকুন। প্রহসনের নির্বাচন নিগরবাসী দেখতে চায় না।

উক্ত সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আলহাজ আনোয়ার হোসাইন, মাওঃ আরিফুল ইসলাম, হাফেজ মাওঃ সিদ্দিকুর রহমান, নুরুল ইসলাম নাঈম, মুফতী মাছউদুর রহমান, মুফতী ওয়ালি উল্লাহ, মুফতী ফরিদুল ইসলাম, হাফেজ নিজাম উদ্দিন, প্রকৌশলী গিয়াস উদ্দিন, একে এম নাজমুল হক প্রমুখ।

তিনি আরো বলেন, হিটলার ইয়াহুদীদেরকে হত্যা করে ইতিহাসে যে অধ্যায় রচনা করেছিল, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জেরুজালেমকে ইসরাঈলের রাজধানী ঘোষণা দিয়ে তার চেয়েও জঘন্য ও কালো অধ্যায় রচনা করেছে। ইতিহাস কোন তাকে ক্ষমা করবে না। একদেশের রাজধানী ঘোষণা করছে অন্য দেশের প্রেসিডেন্ট। এরকম নাটকও আজ বিশ্ববাসীকে দেখতে হলো। ইসরাঈলের রাজধানী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করবে কেন? এটা আমাদের বোধগম্য নয়। এই স্বীকৃতির মাধ্যমে এটাই প্রমান হয় যে, মধ্যপ্রাচ্যকে অশান্ত করার মূল খলনায়ক হলো ডোনাল্ট ট্রাম্প্স। সে-ই ফিলিস্তীন ইসরাঈল সমস্যার সমাধান না করে তাদের জিয়ে রেখেছে যুদ্ধ যুদ্ধ খেলার ষড়যন্ত্র বাস্তবায়ন করার জন্য। এই যুদ্ধ বিগ্রহের মাধ্যমে প্রমাণ করবে মুসলমানরা জঙ্গী, সন্ত্রাসী, বিশ্বশান্তির জন্য হুমকি স্বরুপ। তবে আজকে দিবালোকের ন্যায় বিশ্ববাসীর সামনে স্পষ্ট হয়েছে পৃথীবির শান্তির প্রতিষ্ঠার প্রধান অন্তরায় হলো সা¤্রাজ্যবাদী শক্তি তথা ডোনাল্ড ট্রাম্প।

অধ্যক্ষ মাসউদ জেরুজালেমকে ইসরাঈলের রাজধানীর স্বীকৃতি দেয়ার প্রতিবাদে আগামী ১১ডিসেম্বর সকাল ১০টায় বাইতুল মুর্কারম উত্তর গেইট থেকে মার্কিন দূতাবাস অভিমুখে।

516Shares