| |

শিক্ষানীতি বাতিল না করলে দেশবাসী ব্যালটের মাধ্যমে তার জবাব দিবে: আল্লামা নূরুল হুদা ফয়েজী

প্রকাশিতঃ ১১:৪৮ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ০৭, ২০১৮

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রেসিডিয়াম আল্লামা নুরুল হুদা ফয়েজী বলেছেন, পাঠ্যসুচির মাধ্যমে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম ছাত্র-ছাত্রীদেরকে নাস্তিক্যবাদী ও হিন্দুত্ববাদেও দিকে নিয়ে যাওয়ার গভীর ষড়যন্ত্র চলছে। যতদিন ওহীভিত্তিক শিক্ষাব্যবস্থা টিকে থাকবে ততদিন দুনিয়া টিকে থাকবে। শিক্ষানীতি ও শিক্ষা আইন ২০১৬ বাতিলের জন্য দেশের সর্বস্তরের ঈমানদার জনতা ধারাবাহিকভাবে কর্মসুচি পালন করেছে।ইসলামী জনতার সেন্টিমেন্টকে কোন প্রকার তোয়াক্কা না করে নাস্তিক্যবাদী ও হিন্দুত্ববাদী শক্তির কাছে মাথানত করে পাঠ্যসুচি সংশোধন না করলে এবং শিক্ষানীতি ও শিক্ষাআইন বাতিল না করলে আগামী নির্বাচনে দেশবাসী ব্যালটের মাধ্যমে তার জবাব দিবে, ইনশাআল্লাহ।

গতকাল বিকেলে রাজধানীর জিগাতলাস্থ সাহাবিয়্যাত রা. মহিলা মাদরাসার নতুন বিভাগ ক্বিরাআতুল কুরআন শাখার উদ্বোধন এবং বার্ষিক পুরস্কার বিতরণী মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। মাদরাসার সভাপতি আলহাজ্ব হাফেজ মাওলানা আব্দুল লতিফ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলনের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, মারকাজুল ইলমীর চেয়ারম্যান মুফতী আখতারুজ্জামান, মাদরাসার প্রিন্সিপাল মুফতী ফরীদুদ্দীন মাসউদ, মুফতী আবু হানিফ, মাওলানা হাসান মিসবাহ, মাওলানা গোলামা কিবরিয়া, মুফাসসির হাফেজ মাওলানা আরিফুল ইসলাম, হাফেজ মাওলানা আব্দুল্লাহ আল আমিন, হাফেজ মাওলানা আব্দুল্লাহ মাহমুদ চৌধুরী প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে বেফাক শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষায় মেধা তালিকায় স্থান পাওয়া ২জন ছাত্রীসহ ৬০ জন ছাত্রীকে পুরস্কৃত করা হয়।

উলামায়ে কেরামগণ বলেন, কুরআনী শিক্ষাই একজন মানুষকে প্রকৃত মানুষে পরিণত করে। নৈতিকতা বিবর্জিত শিক্ষা মানুষকে অমানুষে পরিণত করে ফলে জন্মদাতা পিতা-মাতাকেও খুন করতে দ্বিধা করে না। তাই শিক্ষার সকলস্তওে ইসলামী ও নৈতিক শিক্ষাকে বাধ্যতামূলক করতে হবে।

 

0Shares