| |

রসিক নির্বাচন: ইসলামী আন্দোলন ছাড়া প্রার্থী দিতে পারেনি কোন ইসলামী দল

প্রকাশিতঃ ৪:৪১ অপরাহ্ণ | নভেম্বর ২৪, ২০১৭

রংপুর : জাতীয় পার্টির এককালীন দুর্ভেদ্য দুর্গ উত্তরাঞ্চলের রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন সন্নিকটে। তৃণমূলের হিসেব নিকেশ শেষ করে মাঠে নেমেছে রাজনৈতিক দলগুলো। আগামী ২১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য রংপুর সিটি কর্পোরেশনে নির্বাচনে বুধবার শেষদিনে মেয়র পদে ১৩ জন, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৬৭ জন এবং সাধারণ পুরুষ কাউন্সিলর পদে ২২৬ জনসহ মোট ৩০৬ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

গত বুধবার পর্যন্ত রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ১৪ প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেও শেষ পর্যন্ত জমা দিয়েছেন ১৩ জন।

আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বর্তমান মেয়র সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। বিএনপি ও জাতীয় পার্টি থেকে দুইজন করে মনোনয়নপত্র জমা দিলেও ইসলামী দলগুলো থেকে শুধুমাত্র ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশর প্রার্থী এটিএম গোলাম মোস্তফা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

এর আগে তফসিল ঘোষণার দিন ৫ নভেম্বর  নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন কিনা জানতে চাইলে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা আতাউল্লাহ আমিন জানিয়েছেন তাদের কোনো প্রার্থী রংপুর সিটিতে অংশগ্রহণ করবে না।

আর অংশগ্রহণের ব্যাপারে তারা এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেন নি বলে জানান ইসলামী ঐক্যজোটের মহাসচিব মুফতি ফয়জুল্লাহ ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের জমিয়তের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট মাওলানা শাহীনূর পাশা। পরবর্তীতে জানা যায়, শেষ পর্যন্ত দল দুটি নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করার সিদ্ধান্ত নেয়।

তবে খেলাফত মজলিস মহাসচিব অধ্যাপক আহমদ আবদুল কাদের তাওহিদুর রহমান রাজু তাদের সম্ভাব্য প্রার্থী হতে পারে বলে গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করলেও  কোন প্রার্থীই মনোনয়নপত্র দাখিল করেননি। নেপথ্য তদন্তে দেখা যায়, রাজু মজলিসের প্রার্থী হলেও তাঁর ইমেজ সংকট ছিল। ইসলামী সংগঠনের ব্যানারে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেয়ায় তাঁর নিজস্ব অঙ্গন থেকেই সমালেচনার ঝড় উঠে। ব্যক্তিগত জীবনাচারে ইসলামের সংযোগ না থাকাই এর প্রধান কারণ বলে অভিমত সমালোচকদের।

এদিকে গত ১৫ নভেম্বর রংপুর নির্বাচন কমিশনার কার্যালয়ে রিটার্ননিং কর্মকর্তা জনাব সুভাষ চন্দ্র সরকার এর হাতে মনোনয়ন পত্র জমা দেন রংপুর সিটি নির্বাচনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী এটিএম গোলাম মোস্তফা। তিনি গত সিটি নির্বাচনেও ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী হিসেবে অংশগ্রহণ করেছিলেন।

রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ক্ষেত্রে ইসলামী দলগুলোর মধ্যেে একমাত্র ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশই প্রার্থী দিয়েছে। ইতোমধ্যে তারা প্রচার-প্রচারণা ও গণসংযোগ শুরু করেছে পুরোদমে।

গত সিটি নির্বাচনে গোলাম মোস্তফা ১৬ হাজার ভোট পেয়ে পঞ্চম স্থান অধিকার করেন। তার প্রত্যাশা এবার তিনি জয়ের দেখা পাবেন। কিন্তু সেটা কিভাবে সম্ভব? তিনি বলেন, গতবার আমাদের প্রস্তুতি কিছু ত্রুটি ছিলো। এবার তা সংশোধনের চেষ্টা করছি। এবারের প্রচার-প্রচারণাও বেশ জোরালো।’

তিনি আরো বলেন, ‘গতবারের নির্বাচন থেকে এবারের নির্বাচন ভিন্ন হবে কারণ, আমরা গত সিটি নির্বাচনের পর থেকে এ পর্যন্ত পরিকল্পিতভাবে কাজ করে আসছি। শুধু নির্বাচন কেন্দ্রিক নয়; বরং সারা বছরই আমরা জনসেবামূলক কাজ করেছি।

ইসলামী আন্দোলনের স্থানীয় নেতৃবৃন্দ আশা করছেন  যেহেতু অন্যান্য ইসলামী দলগুলো প্রার্থী দেয়নি তাই ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী এটিএম গোলাম মোস্তফা ইসলামপন্থীদের সমর্থন ও ভোট পাবেন। তারা তাদের প্রচারণায়ও এই বিষয়টিতে জোর দিবেন বলে জানান।

প্রসঙ্গত, এটিএম গোলাম মোস্তফা রংপুর শহরেই জন্মগ্রহণ করেছেন। সেখানেই বেড়ে উঠেছেন তিনি। রংপুর কারমাইকেল কলেজ থেকে রাষ্ট্র বিজ্ঞানে মাস্টার্স করেছেন। কিছুদিন শিক্ষকতা করার পর এখন তিনি একজন ব্যবসায়ী এবং২০০৪ সাল থেকে ইসলামী আন্দোলনের সাথে সম্পৃক্ত হন।

উল্লেখ্য, নির্বাচনের  প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ৩ ডিসেম্বর।এই নির্বাচনে ভোটার রয়েছে ৩ লাখ ৮৮ হাজার ৪২১ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১ লাখ ৯৬ হাজার ৬৫৯ এবং নারী ১ লাখ ৯১ হাজার ৭৬২ জন। ১৯৬টি ভোটকেন্দ্রের ১ হাজার ১৭৭টি কক্ষে ভোটগ্রহণ করা হবে।

আওয়ার ইসলাম

Optimization WordPress Plugins & Solutions by W3 EDGE