| |

রমজানের পবিত্রতা রক্ষার দাবীতে ইসলামী আন্দোলনের স্মারকলিপি পেশ

প্রকাশিতঃ ৮:৪০ অপরাহ্ণ | মে ১৩, ২০১৮

আইএবি নিউজ : ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের উদ্যোগে মাহে রমযানের পবিত্রতা রক্ষা এবং নগরজুড়ে রাস্তাঘাটের বেহাল দশার প্রতিবাদে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন মেয়র বরাবর রবিবার (১৩ মে’১৮) বেলা ১২.১৫মি. স্মারকলিপি পেশ করেছে। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলমের নেতৃত্বে ৭ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল স্মারকলিপি প্রদান করেন। মেয়রের পক্ষে স্মারকলিপি গ্রহণ করেন মেয়রের পিএস-২ শেখ কুদ্দুস আহমেদ। প্রতিনিধি দলে ছিলেন কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, দক্ষিণ সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আলতাফ হোসেন, ছাত্রনেতা আল-আমিন সিদ্দিকী ও মুহা. মাহদী হাসান, ইমরান হোসাইন নূর ও শ্রমিকনেতা নকীব বিন হুসাইন।

স্মারকলিপি প্রদান পূর্ব বক্তব্যে মাওলানা ইমতিয়াজ আলম বলেন, মাহে রমাযানের পবিত্রতা রক্ষা করে রোজার পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে হবে। রোজাদারদের কষ্ট লাঘবে সবধরণের ব্যবস্থা সরকারকে করতে হবে। ইফতার, তারাবীহ ও সাহরীতে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ ব্যবস্থা করতে হবে।

তিনি বলেন, ঢাকা নগরী বিশ্বের বসবাসের অনুপযোগী শহরগুলোর মধ্যে চতুর্থ স্থানে রয়েছে। জলাবদ্ধতা, পর্যাপ্ত পরিমাণ পয়ঃনিষ্কাশনের অভাব, বায়ু ও পরিবেশ দুষণ, উন্নয়নের নামে অপরিকল্পিত ও সমন্বয়হীন রাস্তাা খোড়া-খোড়ী, অনিরাপদ বাসস্থান এবং নিরাপত্তাহীনতা অনেকাংশে দায়ী। ঢাকা মহানগরের কিছু এলাকা পরিদর্শন করতে গিয়ে রাস্তাা ঘাটের দুরাবস্থা ও জলাবদ্ধতার যে চিত্র আমরা দেখেছি তা ভাষায় প্রকাশ করার মত নয়। তিনি অবিলম্বে রাস্তাঘাটের বেহাল দশা থেকে নগরবাসীকে উত্তরণে কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান।

স্মারকলিপি প্রদানকালে বেশকিছু কর্মসূচি ঘোষণা করেন। ঘোষিত কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে স্বাগত মিছিল ১৪ মে,  ১৫ মে থানায় থানায় মিছিল, ১৭ রমাযান বদর দিবসের আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল, ১-২০ রমাযান থানা ও ওয়ার্ড শাখার ইফতার মাহফিল, ১২ থেকে পথ শিশুদের জন্য ৩ মাসব্যাপী শিক্ষা কার্যক্রম, ঈদের পূর্বে গরীব, দুঃস্থ ও পথশিশুদের মাঝে ঈদের পোশাক বিতরণ, ঈদের দিন পথশিশুদের মাঝে খাবার বিতরণ, রমাযানের পবিত্রতা রক্ষায় হোটেল মালিকদের নিকট পত্র প্রেরণ, স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে হালালভাবে পশু জবাইয়ের জন্য গোস্ত বিক্রেতাদের মাঝে আমীরের হ্যান্ডবিল বিতরণ, ১৬ মে একই দাবিতে স্থানীয় সরকার ও সমবায় মন্ত্রীর বরাবর স্মারকলিপি পেশ। দাবি পুরণ না হলে মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, রমযানে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদির মূল্য সাধারণ মানুষের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে রাখতে হবে। বাজার সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে হবে। নেতৃবৃন্দ বলেন, রেডিও-স্যাটেলাইট টিভি ও পাড়া-মহল্লায় গড়ে ওঠা ভিডিও ক্লাবগুলোতে সকল প্রকার অশ্লীল ছায়াছবি প্রদর্শন, বেহায়াপনা, উলঙ্গপনা ও অপসংস্কৃতি বন্ধ করতে হবে। ডিএনডি বাঁধের ভিতরের জলাবদ্ধতা স্থায়ীভাবে দূর করার জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণে পাম্পিং ষ্টেশন পাম্প স্থাপন করতে হবে। সকল খাল অবৈধ দখলদার মুক্ত করে পর্যাপ্ত পরিমাণ নালা-নর্দমা তৈরি করতে হবে। স্থায়ী সমাধান না হওয়া পযন্ত পূর্ণ বর্ষার পূর্বেই বিভিন্ন পয়েন্টে যথেষ্ট পাম্পের ব্যবস্থা করতে হবে। নগরীর ভিতর যেখানে জলাবদ্ধতা দেখা দেয় তার স্থায়ী সমাধান করতে হবে। সাধারণভাবে ভেঙ্গে যাওয়া ও উন্নয়নের জন্য কাটা রাস্তা পূর্ণ বর্ষা শুরুর পূর্বেই মেরামতের ব্যবস্থা করতে হবে এবং মশার উৎপাদন চিহ্নিত করে মশা নিধনের কার্যকর পদক্ষেপ ও গণ সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে।

 

834Shares