| |

মোশারফ জিহাদী ছিলেন ইসলামী আন্দোলনের জন্য উৎসর্গিত প্রাণ: পীর সাহেব চরমোনাই

প্রকাশিতঃ ৯:১৫ পূর্বাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৭

ময়মনসিংহ : মঙ্গলবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সদ্য প্রয়াত ইসলামী আন্দোলন য়মনসিংহ জেলার সাবেক সেক্রেটারী ও সদ্য গঠিত ময়মনসিংহ মহানগরের আহবায়ক মাওলানা মোশাররফ হোসেন জেহাদী রহ. এর জীবন ও কর্ম শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ইসলামী আন্দোলন ময়মনসিংহ জেলা উত্তরের উদ্যোগ আয়োজিত জীবন ও কর্ম শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর হযরত মাওলানা মুফতি সৈয়দ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই।

ইসলামী আন্দোলন ময়মনসিংহ জেলা উত্তরে আহবায়ক মুফতি গোলাম মাওলা ভূইয়া’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জামিয়া আশরাফিয়া ময়মনসিংহ এর মুহতামিম ইসলামী আন্দোলন ময়মনসিংহ মহানগরের সদস্য মুফতি তাজুল ইসলাম কাসেমী, জামিয়া মাদানিয়া ফুলপুরের প্রিন্সিপাল ও শায়খুল হাদিস মাওলানা আবদুল খালেক, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মামুনুর রশিদ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যেপীর সাহেব চরমোনাই আলহাজ মাওলানা মোশাররফ হোসেন খান রহ. আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বলেন, মরহুম একজন আলেমে হক্কানী ছিলেন এবং দীর্ঘদিন ইসলামী আন্দোলনের একজন কর্মী ছিলেন। তার মৃত্যুর সংবাদ আমি হেরেমে বসে শুনেছি এবং সেখানে আমি তার আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া করেছি।

পীর সাহেব চরমোনাই আরো বলেন, আমার জানামতে আলহাজ মাওলানা মোশাররফ হোসেন খান রহ. কে আল্লাহ রাব্বুল আলামীন নানামুখী যোগ্যতা দান করেছিলেন। দুনিয়ার প্রচলিত রাজনীতি করলে অনেক ধন-সম্পদের মালিক সে হতে পারত কিন্তু সে তার পুরো জীবনটাই ইসলামী আন্দোলনের জন্যে উৎসর্গ করেছিল, তার রেখে যাওয়া সেই মিশনের সাথে সবাইকে শরীক হওয়ার উদাত্ত আহবান জানাই।

মাওলানা মোশাররফ জিহাদী রহ. এর নিজ গ্রাম ময়মনসিংহের তারাকান্দা থানার কাকনী গ্রামে অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিলে বক্তব্য রাখেন যুব আন্দোলন ময়মনসিংহ জেলার সভাপতি মাওলানা সাইফুল্লাহ মানছুর, ইসলামী আন্দোলন ময়মনসিংহ মহানগরের সদস্য সচিব মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ, মুক্তাগাছা থানা মুজাহিদ কমিটির নায়েবে সদর মাওলানা এনামুল হক, ইসলামী আন্দোলন ময়মনসিংহ সদর থানা সাধারণ সম্পাদক মাওলানা সিরাজুল ইসলাম, ছাত্র আন্দোলন ময়মনসিংহ জেলার সভাপতি রফিকুল ইসলাম মন্ডল।

সভাপতির বক্তব্যে মুফতি গোলাম মাওলা ভূইয়া বলেন, আমার দীর্ঘ ২৫ বছরের রজনৈতিক সহচর ছিলেন তাকে হারিয়ে আজ আমি বাকরুদ্ধ। তার রেখে যাওয়া চার ইয়াতিম সন্তানের পাশে দাঁড়ানোর জন্য সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

আওয়ার ইসলাম

1904Shares