| |

বরিশাল-৫ আসনে ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী মুফতী ফয়জুল করীম

প্রকাশিতঃ ৯:৫৫ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ১৩, ২০১৮

ডেস্ক রিপোর্ট: বরিশাল মহানগর ও সদর উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন নিয়ে সংসদের বরিশাল-৫ আসন, যা দক্ষিণাঞ্চলের রাজনীতির কেন্দ্রবিন্দু। তাই আসনটির দিকে সব রাজনৈতিক দলেরই নজর থাকে।

আওয়ামীলীগ : সিটি নির্বাচনে হেরে যাওয়া হিরন ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সংসদ সদস্য হন। ১৯৭৩ সালের পর এটা আওয়ামী লীগের দ্বিতীয় বিজয়। ওই বছরই তাঁর আকস্মিক মৃত্যুর পর উপনির্বাচনে হিরনের স্ত্রী জেবুন্নেসা আফরোজ নির্বাচিত হন।

মনোনয়নপ্রত্যাশীদের মধ্যে মাহবুব উদ্দিন আহমেদ বীরবিক্রম এর আগে একাধিকবার দলীয় মনোনয়ন পেয়েও জিততে পারেননি। এমনকি বরিশালের বাইরে তাঁর জন্মস্থান মুন্সীগঞ্জে নির্বাচন করেও হেরেছেন। তবু হাল না ছেড়ে জাতীয় দিবসগুলোতে বরিশালে আসছেন, কর্মসূচিতে অংশ নিচ্ছেন। তাঁর মতো প্রায়ই বরিশালে আসেন ২০০৮ সালের দলীয় প্রার্থী সাবেক সেনা কর্মকর্তা জাহিদ ফারুক শামিম। সিটির পাশাপাশি তিনি সংসদেও মনোনয়ন চাচ্ছেন।

এদিকে দলীয় সূত্রে জানা গেছে, আওয়ামীলীগের তৃণমূলের নেতাকর্মীদের অনেকেই চাইছে, সদর উপজেলার চরবাড়িয়া ইউনিয়নের তরুণ ব্যবসায়ী সালাহউদ্দিন রিপন প্রার্থী হোন। মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের এই সন্তান প্রার্থী হলে বিএনপির শক্ত ঘাঁটি বরিশাল-৫ আসনটি দখল করা আওয়ামীলীগের জন্য সহজ হতে পারে বলে মনে করছে তারা। ২০০৬ সাল থেকে তিনি এসআর সমাজকল্যাণ সংস্থার মাধ্যমে নিজ এলাকায় সহায়তামূলক কার্যক্রম চালাচ্ছেন। এরই মধ্যে কয়েক হাজার নারী-পুরুষ ও মেধাবী দরিদ্র শিক্ষার্থীকে আর্থিক সহযোগিতা করে আসছেন।

বরিশাল চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি ও সদর উপজেলার চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টুও এ আসনে মনোনয়ন চাইছেন। তিনি দলীয় কর্মসূচিতে অংশ নিচ্ছেন।

বিএনপি : সুবিধাজনক অবস্থানে থাকা বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশীদের তালিকাটি বেশ বড়। তবে দলের যুগ্ম মহাসচিব মজিবর রহমান সরোয়ারই মনোনয়ন পাবেন—এটা মোটামুটি নিশ্চিত বলে দলীয় সূত্রগুলো জানিয়েছে।

সূত্রগুলো বলছে, জাতীয় নির্বাচনের আগে সিটি নির্বাচন হওয়ায় সরোয়ার দলীয় মহলে বলছেন, তিনি সিটি নির্বাচনে প্রার্থী হবেন না। আবার এও বলছেন, নেত্রী চাইলে প্রার্থী হবেন।

মেয়র ও সংসদ দুটি নির্বাচনই করতে চাইছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য বিলকিস জাহান শিরিন। সিটি নির্বাচনের মনোনয়ন দৌড়ে শিরিন এগিয়ে গেলে রাজনৈতিক মাঠ দখলে রাখতে সরোয়ারও সিটি নির্বাচনে আসতে পারেন বলে দলীয় সূত্র আভাস দিয়েছে। মেয়র পদে আরেক মনোনয়নপ্রত্যাশী বরিশাল দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি এবায়েদুল হক চান। বর্তমান মেয়র আহসান হাবিব কামাল সিটি নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন চাচ্ছেন। সরোয়ারও তাঁর পক্ষে। কামালের পক্ষ নিলে নেতাকর্মীদের একটি বড় অংশ সংসদ নির্বাচনে সরোয়ারের বিপক্ষে অবস্থান নিতে পারে। কোন্দলের কারণে সিটি ও সংসদ নির্বাচনের ফলাফল আওয়ামী লীগের পক্ষে যেতে পারে, তা মাথায় রেখেই খুব সতর্ক বিএনপি।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ : বরিশাল সদর আসনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ একক প্রার্থী দেবে। এ আসনে দলীয় প্রার্থী হতে পারেন চরমোনাই পীরের ভাই ও সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র নায়েবে আমির মুফতি মো. ফয়জুল করিম। তিনি ২০০৮ সালের সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে এ আসন থেকে ৩১ হাজার ভোট পান। তার দলের বিশ্বাস, আসন্ন সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হলে মুফতী ফজুল করীম এবার ভোটের সংখ্যায় চমক দেখাতে সক্ষম হবেন।

Optimization WordPress Plugins & Solutions by W3 EDGE