| |

পীর সাহেব চরমোনাই’র নেতৃত্বে ১১ ডিসেম্বর মার্কিন দূতাবাস অভিমুখে গণমিছিল

প্রকাশিতঃ ৯:৩৫ অপরাহ্ণ | ডিসেম্বর ০৮, ২০১৭

আইএবি নিউজ: জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী ঘোষণার প্রতিবাদে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর রাজধানীতে বিশাল সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচি পালন করেছে। প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে ১১ ডিসেম্বর মার্কিন দূতাবাস অভিমুখে গণমিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে দলটি। সেদিন বাইতুল মোকাররম উত্তর গেইটে সকাল ১০টায় জমায়েত শেষে সংগঠনের আমীর শায়েখ চরমোনাই’র নেতৃত্বে মার্কিন দূতাবাস অভিমুখে বিশাল গণমিছিল রওয়ানা দিবে।

শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর’১৭) বাইতুল মোকাররম উত্তর গেইটে বাদ জুম’আ মিছিল পূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইসলামী আন্দোলনের প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যক্ষ মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী বলেছেন, ডোনাল্ড ট্রাম্পের মুসলমানদের পবিত্র স্থান জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি বিশ্বকে নতুন করে সংঘাতের দিকে ঠেলে দিবে। তিনি বলেন, ডোলান্ড ট্রাম্প বর্তমান সভ্যতার নব্য ফেরাউন। মুসলমানদের প্রথম কেবলা জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি প্রদানের সিদ্ধান্তে গোটা মুসলিম উম্মাহকে বিক্ষুব্ধ, মর্মাহত ও ব্যথিত করেছে। তার এই সিদ্ধান্ত মুসলমানরা বাস্তবায়ন হতে দিবে না। মাওলানা মাদানী ১১ ডিসেম্বর মার্কিণ দূতাবাস অভিমূখে গণমিছিল সফল করার আহ্বান জানান।

সংগঠনের ঢাকা মহানগর উত্তর সভাপতি অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক হাফেজ মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দিন, নগর দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা মুহাম্মদ ইমতিয়াজ আলম, কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম। উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক প্রকৌশলী আশরাফুল আলম, কেএম আতিকুর রহমান, মাওলানা নেছার উদ্দিন, আলহাজ্ব আলতাফ হোসেন, আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন, মাওলানা এবিএম জাকারিয়া, মাওলানা আরিফুল ইসলাম, হাফেজ ছিদ্দিকুর রহমান, ডা. শহিদুল ইসলাম, মাওলানা এইচ এম সাইফুল ইসলাম ও মুফতী মাছউদুর রহমান প্রমুখ।

অধ্যাপক এটিএম হেমায়েত উদ্দিন বলেন, ১৫০ কোটি মুসলমানের বুকে একফোঁটা রক্ত থাকতে জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হতে দেয়া হবে না। প্রয়োজনে মুসলমানরা জেরুজালেম পুনরুদ্ধারের আন্দোলনের ঘোষণা দিবে। তিনি মুসলিম বিশ্বকে ফিলিস্তনের পক্ষে অবস্থান নেয়ার আহ্বান জানান।

দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলম বলেন, গ্যাস বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত চরম অমানবিক। দ্রব্যমূল্যেল উর্ধ্বগতিতে জনজীবন বিপর্যস্ত। বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে অধ্যক্ষ শেখ ফজলে বারী মাসউদ বলেন, যেখানে ইসরাইলি রাষ্ট্রের বৈধতাই নেই সেখানে সেই দেশের রাজধানী এমন একটি স্থানকে ঘোষণা করা চরম দায়িত্বহীনতা, অবিবেচক ও উস্কানিমূলক কাজ। তার এই সিদ্ধান্ত বিশ্ববাসী মেনে নেয়নি। ইতিমধ্যে জাতিসংঘ, ওআইসি, ইউরোপিয় ইউনিয়ন, আরবলীগ, ফ্রান্স, ব্রিটেন, জার্মানিসহ সকল দেশ ও সংস্থা প্রত্যাখ্যান করেছে। সাম্রাজ্যবাদীদের এ ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো মুসলিম উম্মাহর পবিত্র দায়িত্ব।

সমাবেশশেষে একটি বিশাল মিছিল নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

 

0Shares