| |

নাটোর-২ আসনে ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী অ্যাডভোকেট আমেল খান চৌধুরী

প্রকাশিতঃ ১০:৪২ পূর্বাহ্ণ | নভেম্বর ১১, ২০১৭

আইএবি নিউজঃ নাটোর-২ (সদর ও নলডাঙ্গা) জেলা শহর, সদর ও নলডাঙ্গা উপজেলা নিয়ে গঠিত এই আসন। ৩ লাখ ৩১ হাজার ৮৯৭ জন ভোটারের নাটোর সদর ও নলডাঙ্গা উপজেলা নিয়ে গঠিত জেলার সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ এই আসনে বরাবরের মতো এবারো সব দলেরই কেন্দ্রীয় ও জেলার র্শীষ নেতারা মনোনয়ন প্রত্যাশী। ফলে কে পাচ্ছেন মূল দুই দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মনোনয়ন সেটা নিয়ে সবার মধ্যেই রয়েছে কৌতুহুল।

এই আসনটিতে গত কয়েক সংসদ নির্বাচনের মতো এবারো বিএনপির একক প্রার্থী দলের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও নাটোর জেলা সভাপতি এই আসন থেকে তিনবার নির্বাচিত সাবেক এমপি সাবেক উপমন্ত্রী অ্যাডভোকেট এম রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু। মামলা জটিলতা বা অন্য কোন কারনে তিনি প্রার্থী হতে না পারলে নবম সংসদ নির্বাচনের মতো প্রার্থী হবেন তারই সহধর্মীনি ও জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি সাবিনা ইয়াসমিন ছবি। নবম সংসদ নির্বাচনে দুলু প্রতিদ্বন্দ্বীতা করতে না পারায় হঠাৎ করে নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে তার সহধর্মীনি সাবিনা ইয়াসমিন ছবি আওয়ামী লীগের সাবেক যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আহাদ আলী সরকারের কাছে অল্প ভোটে পরাজিত হয়েছিলেন।

অপরদিকে আওয়ামী লীগে মনোনয়ন দৌড়ে নেমেছেন দলের প্রায় ডজন খানেক নেতা। এর মধ্যে রয়েছেন গত নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় বিজয়ী প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য হওয়া তরুণ নেতা জেলা আওয়ামী লীগের নতুন সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম শিমুল এমপি।

গুরুত্বপূর্ণ এই আসনটিতে প্রার্থী মনোনয়নের ক্ষেত্রে বিএনপিতে কোন দ্বিমত না থাকলেও আওয়ামীলীগে ব্যাপক কোন্দলের কারনে এখানে বর্তমান এমপির বিরুদ্ধে নিজেদের প্রার্থীতা ঘোষণা করেছেন প্রায় এক ডজন নেতা।

এদিকে পীর সাহেব চরমোনাইর নেতৃত্বাধীন দেশের বৃহত্তম ইসলামী রাজনৈতিক দল ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত নাটোর-২ আসনে হাতপাখার প্রার্থী জেলা সভাপতি অ্যাডভোকেট আমেল খান চৌধুরী। নাটোর জেলা সেক্রেটারী মাওলানা মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী জানান, কোন দলের সাথে জোট না করে তার দল একক ভাবে নির্বাচন করার জন্য নাটোরের আলোচিত মুখ ইসলাম বিরোধী সব কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে সোচ্চার ব্যক্তিত্ব সংগঠনের জেলা সভাপতি অ্যাডভোকেট আমেল খান চৌধুরীকে কেন্দ্রীয় সংগঠন সদর আসনে মনোনয়ন দিয়েছেন। আশাকরি, সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ পরিবেশে নির্বাচন হলে আমাদের সুস্পষ্ট অবস্থান জাতি দেখতে পাবে।

তিনি আরো বলেন, এ আসনের মানুষ আওয়ামীলীগ- বিএনপির অপরাজনীতির কারণে রাজনৈতিকভাবে আজ অবরুদ্ধ। তারা দু’দলের শাসন থেকে মুক্তি চায়। এলাকার সার্বিক উন্নয়ন ও মানুষের নৈতিক ও মানবিক অধিকার সুনিশ্চিত করতে আমাদের দল প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। বড় দুই দলের শাসনের নামে শোষণ নিপীড়ন ও সীমাহীন দুর্নীতি-দুঃশাসন জনগণ দেখেছে। তারা এখন এ অবস্থার পরিবর্তন চায়।

উল্লেখ্য, কয়েক মাস আগে নাটোরে জুয়া খেলা ও অশ্লীলতার প্রতিবাদ করায় স্থানীয় প্রভাবশালী আওয়ামী নেতা কর্তৃক অ্যাডভোকেট আমেল খান রাজনৈতিক হয়রানি শিকার হন। তার বিরুদ্ধে মিথ্যা রাষ্ট্রদ্রোহী মামলা দিয়ে তাকে জেলে দেয়া হয়। পরে স্থানীয় বিক্ষুব্ধ জনতার প্রতিবাদের মুখে প্রশাসন তাকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়।

Optimization WordPress Plugins & Solutions by W3 EDGE