| |

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে হিজাব পরিধানে বাধা দেয়া চরম ধর্ম অবমাননা ও সংবিধান পরিপন্থি

প্রকাশিতঃ ৯:৩৬ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ১৬, ২০১৮

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলম বলেছেন, হিজাব পরিধানের কারণে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের তাসনিয়া আনিকাকে ক্লাস রুম থেকে বের করে দিয়ে সহকারী অধ্যাপক সাইদুল আলামিন ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ করেছে। পর্দা ইসলামের অলঙ্ঘনীয় বিধান যা পালন করা প্রত্যেক মুসলমানের জন্য ফরজ। অস্বীকার করার সুযোগ নেই।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বের দ্বিতীয় মুসলিম অধ্যুষিত দেশ, রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম। এ দেশের মানুষ ধর্মপ্রাণ; ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলা তাদের পারিবারিক, সামাজিক ও রাষ্ট্রিয় ঐতিহ্য এবং গণতান্ত্রিক অধিকার। এ অধিকার খর্ব করা বা হিজাব পরিধানে বাধা দেয়া চরম ধর্ম অবমাননা এবং গণতান্ত্রিক অধিকারে হস্তক্ষেপ এবং সংবিধান পরিপন্থি। কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক সাইদুল আলামিন হিজাব পরিধানের কারণে তাসনিয়া আনিকাকে ক্লাস রুম থেকে বের করে এবং হিজাব নিয়ে কটুক্তি করে যে ধৃষ্টতা দেখিয়েছে তা ধর্মীয় অনুভূতিতে চরম আঘাত। তাকে অনতিবিলম্বে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিস্কার করে আইনের আওতায় আনতে হবে। অন্যথায় দেশবাসী প্রতিবাদ আন্দোলন গড়ে তুলবে এবং এ জন্য যে কোন অবস্থার দায়ভার সরকারকে বহন করতে হবে।

সোমবার (১৬ এপ্রিল’১৮) বিকেলে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ-এর কদমতলী থানার ৫৯নং ওয়ার্ড শাখা আয়োজিত ওয়ার্ড সদস্য সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

রাজধানীর মোহাম্মদবাগস্থ একটি মাদরাসা মিলনায়তনে ওয়ার্ড সভাপতি আলহাজ্ব মুজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং সেক্রেটারী মোহাম্মদ ফরহাদ বেপারীর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদ মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ুম, নগর সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. শহিদুল ইসলাম, কদমতলী থানা সহ-সভাপতি মাওলানা বাছির উদ্দিন মাহমুদ, আলহাজ্ব সাইদুল ইসলাম বাবুুল, আলহাজ্ব মাস্টার ইউনুছ আহামদ, নির্মাণ শ্রমিক আন্দোলন সভাপতি মুহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক, আলহাজ¦ নজরুল ইসলাম, কৃষক মজুর আন্দোলন ঢাকা মহানগর সভাপতি আলহাজ্ব ইসমাইল হোসেনসহ ওয়ার্ড নেতৃবৃন্দ।

2809Shares