| |

ইসলামী সমাজ প্রতিষ্ঠা হলে মানুষ সুখে-শান্তিতে বসবাস করতে পারবে: শায়েখ চরমোনাই

প্রকাশিতঃ ১০:৫৯ অপরাহ্ণ | মে ০৭, ২০১৮

স্টাফ রিপোর্টার: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, সমাজের সর্বস্তরে ক্রমেই অশান্তির আগুন জ্বলছে। মানুষ বিভিন্নভাবে অশান্তিতে দিনাতিপাত করছে। নৈতিকতা বির্বজিত সমাজ ব্যবস্থা আমাদের যুবসমাজকে চারিত্রিকভাবে ধ্বংস করে দিচ্ছে। ফলে কোথাও সুখ-শান্তি নেই। মানুষ ইসলাম থেকে দূরে সরে যাওয়ার কারণেই অশান্তির কবলে নিপতিত হচ্ছে। বিশ্বের যেখানে যতটুকু শান্তি আছে তা কেবল ইসলামের জন্যই আছে। ইসলাম মানেই শান্তি। কাজেই ইসলামী সমাজ প্রতিষ্ঠায় সর্বস্তরের মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে। যাদের সম্পদ আছে তাদের সম্পদ ইসলামের স্বার্থেই ব্যবহার করতে হবে। নিজেদের সম্পদ ইসলামের উপকারে না আসলে এ সম্পদের কোন মূল্য নেই। কাজেই ইসলাম প্রতিষ্ঠায় সাহাবায়ে কেরামের নমুনা স্থাপন করতে হবে।

শুক্রবার সকাল ৯টায় রাজধানীর ভাটারা আসসাঈদ মিলনায়তনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর উত্তর-এর উদ্যোগে সুধীদের সাথে মতবিনিময়কালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। সংগঠনের উত্তর সভাপতি অধ্যক্ষ শেখ ফজলে বারী মাসউদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন, মাওলানা আরিফুল ইসলাম, মাওলানা ছিদ্দিকুর রহমান, মুফতি মাসউদুর রহমান, এ কে এম নাজমুল হক প্রমুখ।

পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, নির্বাচনের মাত্র ৮দিন আগে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন ৩ মাসের জন্যে হাইকোর্টের মাধ্যমে স্থগিত হওয়ায় নির্বাচন কমিশনের অদূরদর্শিতা, অযোগ্যতা, অদক্ষতা ও নতজানু হিসেবে ফুটে উঠেছে। এধরণের অথর্ব নির্বাচন কমিশন দিয়ে আগামী জাতীয় নির্বাচন সম্ভব নয়।
মুফতী ফয়জুল করীম বলেন, মাজা ভাঙ্গা নির্বাচন কমিশন দিয়ে দেশে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব হবে না। সীমানা জটিলতায় মামলা চলমান থাকার পরও ইসি কেন নির্বাচনের সিডিউল ঘোষণা করলেন? এধরণের নির্বাচন কমিশনরে উপর আস্থা রাখা যায় না।

2338Shares