| |

ইশা ছাত্র আন্দোলন লক্ষ্মীপুর জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত: সভাপতি ইমরান, সাধারণ সম্পাদক রাশেদ

প্রকাশিতঃ ৬:০২ পূর্বাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ০৩, ২০১৮

এ. আর. পারভেজ, লক্ষ্মীপুর জেলা সংবাদদাতাঃ শুক্রবার (২ ফেব্রুয়ারী) সকাল ৯টায় ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন লক্ষ্মীপুর জেলা শাখার উদ্যোগে জেলা সভাপতি মুহাম্মদ মাহমুদুল হাসানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মু. নুরুল আলমের সঞ্চালনায় দক্ষিণ তেমুহনি পার্টি সেন্টারে জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা ও ৮নং চর কাদিরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আল্লামা খালেদ সাইফুল্লাহ এবং প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি শেখ মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম। সম্মেলনে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন লক্ষ্মীপুর জেলা শাখার ২০১৭ সেশনের কমিটি বিলুপ্ত করে ২০১৮ সেশনের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। সভপতি-মুহাম্মদ ইমরান হোসাইন, সহ-সভাপতি মুহাম্মদ নুরুল আলম ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মুহাম্মদ রাশেদুল ইসলাম মনোনীত হন। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে দেশের বর্তমান পরিস্থিতি সমালোচনা করে সরকারের উদ্দেশ্যে বলেন, পদ্মা সেতুর খুঁটি দেখিয়ে জনগণের মন জয় করা সম্ভব নয়।জনগণের মন জয় করতে হলে শোষক নয় খাদেম হয়ে কাজ করতে হবে। তিনি আরো বলেন, স্বাধীনতার ৪৭ বৎসর পেরিয়ে বারবার ক্ষমতার পরিবর্তন আর কিছু দুর্নীতিবাজ নেতা ছাড়া আমরা আর কিছুই পায়নি। ক্ষমতার পরিবর্তন আর দুর্নীতিবাজ নেতার মাধ্যমে দেশের মঙ্গল অসম্ভব।তাই আমাদেরকে রাজনৈতিক ধারা পরিবর্তন করে ইসলামকে ক্ষমতায় আনতে হবে। প্রধান বক্তা তার বক্তব্যে বলেন, মাদরাসা ও বোরকা নিয়ে সর্বোচ্চ বিদ্যাপিঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকদের আপত্তিকর মন্তব্য আমাদেরকে হতাশ করছে। যোগ্যতার ভিত্তিতে চান্স পাওয়া ছাত্রদের এভাবে হেয় করায় তাদেরকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে নচেৎ সারাদেশে আন্দোলনের ঝড় ওঠবে। তিনি আরো বলেন, সারাদেশে ছাত্রলীগ যে অপ্রীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করছে এতে দেশবাসী নির্বাক। তিনি সরকারের উদ্দেশ্য বলেন, অনতিবিলম্বে এই পাগলা ঘোড়ার লাগাম না টানলে তারা দেশকে রসাতলে নিয়ে যাবে। বিশেষ অতিথি ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ লক্ষ্মীপুর জেলা শাখার সভাপতি অনারারী (অবঃ) ক্যাপ্টেন মু. ইব্রাহীম বলেন, ৩২নং ধারা প্রণোয়ন করে সরকার গদিকে দীর্ঘস্থায়ী করার যে ফন্দি এঁটেছে তা বুমেরাং হবে ইনশাল্লাহ। আইন করে জনগণকে দমানো কখনো সম্ভব নয়। জনগণ আগামী নির্বাচনে ব্যালটের মাধ্যমে তার জবাব দিবে ইনশাল্লাহ। জেলা সভাপতি তার উদ্বোধনী বক্তব্যে বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী ইতিহাস থেকে আমরা স্পষ্ট বুঝতে পারি, গণতন্ত্রের মাধ্যমে দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠা সম্ভব নয়। দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে হলে শান্তির ধর্ম ইসলামকে ক্ষমতায় আনতে হবে। এজন্য আমাদেরকে একাত্মভাবে কাজ করে যেতে হবে। এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ লক্ষ্মীপুর জেলা শাখার সহ-সভাপতি মাও. দেলাওয়ার হোসাইন, সেক্রেটারি মাও. মুহাম্মদ মহিউদ্দিন, জয়েন্ট সেক্রেটারি মাও. ইউসুফ আল মাহমুদ, ছাত্র ও যুব বিষয়ক সম্পাদক মাও. মাহবুবুর রহমান, দপ্তর সম্পাদক মাও. আবুল হাসান, সাবেক জয়েন্ট সেক্রেটারি মাও. জহির উদ্দিন, ইসলামী যুব আন্দোলন জেলা সভাপতি মাওলানা. আ.হ.ম. নোমান সিরাজী, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন জেলা সভাপতি মুহাম্মদ শাহাজাহান তালুকদার, ইশা ছাত্র আন্দোলন সাবেক সভাপতি মাও. আনোয়ার হোসাইন। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন লক্ষ্মীপুর জেলা শাখার সহ-সভাপতি মু. ইমরান হোসাইন, সাংগঠনিক সম্পাদক মু. রাশেদুল ইসলাম, প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক মু. ফারবেজ হোসাইন,অর্থ সম্পাদক মু. তানভীর হোসাইন প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

0Shares