| |

আমি নগরবাসীর খেদমতের জন্য নির্বাচনে অংশ নিয়েছি: ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন খান

প্রকাশিতঃ ১০:২১ অপরাহ্ণ | জুলাই ২৫, ২০১৮

আধ্যাত্মিক রাজধানী খ্যাত হযরত শাহজালাল, শাহপরান, গাজি বুরহানউদ্দিন রহ. এর পুণ্যভূমি, উলামায়ে কেরামের পদধূলিতে ইসলামী হুকুমতের জন্য উর্বর জমি, ধর্মপরায়ণ সাধারণ জনতার প্রিয় সিলেটকে সন্ত্রাস, দুর্নীতি, মাদকমুক্ত ও শহরের যানজট নিরসন করে একটি মডেল সিলেট গড়ার অঙ্গীকার নিয়ে আগামী সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে পীর সাহেব চরমোনাই মনোনীত ও ওলামা-মাশায়েখ সমর্থিত হাতপাখা প্রতীকে মেয়র প্রার্থী হয়েছেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সদস্য ও সিলেট নর্থ ইস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন খান। এই সিটিতে ইসলামী আন্দোলন এবারই প্রথম নির্বাচন করছে।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সংবাদ নির্ভর একমাত্র ও সময়ের জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল আইএবি নিউজের নিজস্ব প্রতিনিধি মাফুজ মাহি নির্বাচন বিষয়ে জানতে সিসিক মেয়র প্রার্থী প্রফেসর ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন খানের মুখোমুখি হয়েছিলেন। তাদের সে প্রশ্নোত্তরে উঠে এসেছে প্রার্থীর নির্বাচন সংক্রান্ত অনেক কথা।

আইএবি নিউজ: সিলেট সিটি নির্বাচনে কেন অংশগ্রহণ করছেন?

প্রার্থী: আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের সন্তুষ্টি অর্জন, সাওয়াবের নিয়ত এবং জনগণের খেদমত করার ইচ্ছা এবং দলের পক্ষ থেকে আমাকে এই গুরু দায়িত্ব দিয়ে সে ইচ্ছা পূরণে এগিয়ে আসায় আগামী সিটি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছি।

আইএবি নিউজ: আপনি সিলেট সিটি নির্বাচনে মেয়র নির্বাচিত হলে সিলেটবাসীর জন্য কি করবেন?

প্রার্থী: সিলেট যেহেতু একটি প্রাচীন ও আধ্যাত্মিক রাজধানী, সেখানে অনেক ওলী আউলিয়াগণ শুয়ে আছেন। সিলেটের মাটি পবিত্র মাটি এবং এই সিলেটের মানুষ খুবই ধর্মপরায়ণ। আমার বিশ্বাস, সিলেটের মানুষ একজন খোদাভীরু, নীতিবান মানুষকে তাদের মেয়র হিসেবে নির্বাচিত করবে। যদি আল্লাহ কবুল করেন, আর সিলেটের মানুষ আমাকে সুযোগ দেন, তাহলে সন্ত্রাস, দুর্নীতি, অনৈসলামিক কার্যক্রম বন্ধ, যানজট নিরসন করে সমাজের স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য নিজের সর্বস্ব বিলিয়ে দিয়ে আধ্যাত্মিক রাজধানীর মর্যাদা রক্ষা করা হবে আমার প্রধান কাজ। আমি সিলেটকে সত্যিকার অর্থেই একটি মডেল সিটি হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।

আইএবি নিউজ: আমরা জেনেছি, সিসিক নির্বাচনে আপনি একমাত্র ইসলামী প্রার্থী, সেটাকে আপনি কিভাবে দেখছেন?

প্রার্থী: হ্যা, সিসিকে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী এককভাবে ইসলামী প্রার্থী। অন্য কোন সংগঠন বা সতন্ত্র প্রার্থী ইসলামের পক্ষে নেই। এটা আমার জন্য প্লাস পয়েন্ট। তাই আমার বিশ্বাস ইসলাম প্রিয় তাওহীদি জনতার ভোট হাতপাখাতে কাষ্ট হবে ইনশা’আল্লাহ।

আইএবি নিউ: নির্বাচনে জনসমর্থন বা কেমন সাড়া পাচ্ছেন?

প্রার্থী: আমি আগেই বলেছি, সিলেটের মানুষ ধর্মপরায়ণ। সিলেটে চাইলে মুহুর্তে নির্বাচনের রুপ পাল্টে যেতে পারে। আর যেহেতু আমি ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত আর সিলেটের উলামায়ে কেরাম, শিক্ষিত সমাজ ও সাধারণ জনতার সমর্থিত মেয়রপ্রার্থী, তাই এখানে জনসমর্থনের বিষয় পরিস্কার। আলহামদুলিল্লাহ, সিলেটের উলামায়ে কেরাম সহ বিভিন্ন শ্রেণী, পেশাজীবী, সংবাদিক বন্ধু ও সুধী সমাজের কাছ থেকে ভালো সাড়া পাচ্ছি।

আইএবি নিউজ: সিলেটবাসীর উদ্দেশ্যে কিছু বলুন?

প্রার্থী: সিলেটবাসীর কাছে আমার একটা ম্যাসেজ! বিগত সময়ে আপনারা এই সিটিতে নৌকার মেয়র দেখেছেন, ধানের শীষের মেয়র দেখেছেন। এবার আপনাদের কাছে বিনীত অনুরোধ, আপনাদের সময় এসেছে, ভোট দেয়ার আগে একটু চিন্তা করুন, প্রার্থীর যোগ্যতা যাচাই করুন, যোগ্য ও নীতিবান ব্যক্তিকে এবারের সিসিক নির্বাচনে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করুন। কেননা প্রার্থী সৎ ও ক্লিন ইমেজের না হলে তার মাধ্যমে সন্ত্রাস, মাদক ও দূর্নীতি মুক্ত স্বচ্ছ আদর্শ সিটি গড়া সম্ভব নয়।

আইএবি নিউজ: স্যার, আমাদেরকে আপনার মূল্যবান দেয়ার জন্য অনেক ধন্যবাদ এবং আসন্ন নির্বাচনে আপনার জন্য আইএবি নিউজ পরিবারের পক্ষ থেকে অনেক অনেক শুভ কামনা।

প্রার্থী: তোমাকে ও তোমাদের আইএবি নিউজ পরিবারকেও অসংখ্য ধন্যবাদ।

674Shares